বাংলাদেশ রেলওয়ে গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার
মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ৯ জানুয়ারি ২০১৭

বর্তমান সরকারের আমলে ২০০৯ থেকে অক্টোবর, ২০১৬ পর্যন্ত বাংলাদেশ রেলওয়ের অর্জিত সাফল্যের সার-সংক্ষেপ

 

ক্রমিক

কর্মকান্ডের বিষয়

বাস্তবায়ন অগ্রগতি (২০০৯ হতে জুন, ২০১৬ পর্যন্ত) ।

১।

রেল লাইন:

 

 

ক) নতুন নির্মাণ

২৩৬.৮৭ কিঃ মিঃ

(তারাকান্দি হতে বঙ্গবন্ধু সেতুর পূর্ব পর্যন্ত ৩৫ কিঃ মিঃ, সিগন্যালিংসহ টঙ্গী-ভৈরব বাজার ৮৬ কিঃ মিঃ (মেইন লাইন ৬৪ কি: মি: ও লুপ লাইন ২২ কি: মি:), লাকসাম-চিনকী আস্তানা ৮১ কিঃ মিঃ (মেইন লাইন ৬১ কি: মি: ও লুপ লাইন ২০ কি: মি:), ফরিদপুর-ভাঙ্গা ১০ কিঃ মিঃ), ঈশ্বরদী-পাবনা-ঢালারচর ২২ কিঃ মিঃ ও চট্টগ্রাম স্টেশন ইয়ার্ড ২.৮৭ কি:মি:।

খ) মিটারগেজ থেকে ডুয়েলগেজে   রূপান্তর।

২৪৮.৫০ কিঃ মিঃ

(ঢাকা-জয়দেবপুর ৮৫ কিঃ মিঃ, দিনাজপুর-পঞ্চগড় ১৬ কিঃ মিঃ, পারবর্তীপুর-কাঞ্চন-পঞ্চগড় এবং কাঞ্চন-বিরল সেকশন ১৪৭.০৫ কিঃ মিঃ)

গ)উন্নয়ন/পুনর্বাসন/পুন:নির্মাণ

১০৯০.৪৩ কিঃ মিঃ

(লালমনিরহাট-বুড়ীমারী ৯৫ কিঃ মিঃ, কালুখালী-ভাটিয়াপাড়া সেকশন ৮২ কিঃ মিঃ, মেইন লাইন সেকশনসমূহের পুনর্বাসন ৪৯.২৫ কিঃ মিঃ, সৈয়দপুর-চিলাহাটি সেকশন ৬২ কিঃ মিঃ, পাঁচুরিয়া-ফরিদপুর-ভাঙ্গা ৩৯.০৫ কিঃ মিঃ, রাজশাহী-রোহনপুর ৯২ কিঃ মিঃ, ঢাকা-নারায়নগঞ্জ ২০.৮ কিঃ মিঃ, গৌরিপুর-জারিয়া-ঝাঞ্জাইল ৭৮.৬৪ কিঃ মিঃ, ফৌজদাহাট-সিজিপিওয়াই ৩৭.৫০ কিঃ মিঃ, ময়মনসিংহ-জামালপুর-দেওয়ানগঞ্জ বাজার ১০৪.৮৭ কিঃ মিঃ, ষোলশহর-নাজিরহাট সেকশন ৫৭.৮৯ কিঃ মিঃ, তিস্তা-রমনা বাজার ৪৮ কিঃ মিঃ, লাকসাম-চাঁদপুর ৫১ কিঃ মিঃ, সৈয়দপুর ওয়ার্কসপ ১৮ কিঃ মিঃ ও পোড়াদহ-গোয়ালন্দ ২১ কিঃ মিঃ ও চিনকি আস্তানা-আশুগঞ্জ ১৯৮ কি: মি:, চট্টগ্রাম স্টেশন ইয়ার্ড ১১ কি:মি:, পাহাড়তলী ওয়ার্কসপ ৪.৮০ কি:মি: ও দর্শনা-ঈশ্বরদী ১৯.৬৩ কি:মি:।)

২।

স্টেশন বিল্ডিং:

 

 

ক) নতুন নির্মাণ

৬৭ টি

খ)উন্নয়ন/পুনর্বাসন/পুন:নির্মাণ

১৬০ টি

৩।

 ব্রীজ

 

 

ক) নতুন নির্মাণ

১৭৯ টি

খ) পুনর্বাসন/পুন:নির্মাণ

৫৯৭ টি

৪।

লোকোমোটিভ:

 

 

ক) সংগ্রহ

৪৬ টি (২০ টি এমজি ও ২৬ টি বিজি) এবং ২০ টি ডিইএমইউ।

খ) পুনর্বাসন

-

৫।

ক্যারেজ:

 

 

ক) সংগ্রহ

২৩০ (১৩০টি বিজি ও ১০০টি এমজি)

খ) পুনর্বাসন

২৮৮ টি (২১৪ টি এমজি ও ৭৪ টি বিজি)

৬।

ওয়াগন:

 

 

ক) সংগ্রহ

৫১৬ টি (৫০টি এমজি ফ্ল্যাট+৫০টি এমজি ফ্ল্যাট+১৭০টি এমজি ফ্ল্যাট+১৬৫টি বিজি ট্যাঙ্ক+৮১টি এমজি ট্যাঙ্ক) এবং ৩০ টি (৫টি+৫টি+৬টি+১১টি+৩টি) ব্রেক ভ্যান।

খ) পুনর্বাসন

                                              ২৭৭ টি

৭।

সিগন্যালিং:

 

 

ক) উন্নয়ন ও আধুনিকীকরণ

৫৯ টি (১২টি স্টেশন সিগনালিং+১০টি স্টেশন+১১টি স্টেশন লাকসাম চিনকীআস্তানা+১২টি স্টেশন টঙ্গী-ভৈরববাজার+১৩টি স্টেশন সিগনালিং+১টি চট্টগ্রাম স্টেশন ইয়ার্ড)

খ) পুনর্বাসন

৯ টি (কালুখালী-ভাটিয়াপাড়া)

৮।

নতুন ট্রেন চালুকরণ

১০৬ টি

৯।

ট্রেন সার্ভিস বর্ধিতকরণ

৩০ টি

১০।

মেশিন সংগ্রহ

 

 

ক) হুইল লেদ মেশিন  (ডুয়েলগেজ) স্থাপন।

১ টি

 

খ) বঙ্গবন্ধু সেতুর নিরাপত্তা নিশ্চিতকরণের জন্য লোড মনিটরিং ডিভাইস সংগ্রহ ও

২ টি

১১।

ক্রেন

২ টি

 

 


Share with :
Facebook Facebook